নরসিংদীতে বাস-মাইক্রোবাসের সংঘর্ষ, নিহত ১১

৫০ বার পঠিত
বাংলাদেশে সড়ক বা মহাসড়কে যেসব দুর্ঘটনা ঘটে তার অন্যতম একটি কারণ থাকে ওভারটেক। যে গাড়িটি ওভারটেক করে সে ওভারটেক করতে গিয়ে গতি বাড়িয়ে দেয়। আর যে গাড়িটিকে ওভারটেক করা হয় সেও গতি বাড়ায়। এক পর্যায়ে ওভারটেক করা গাড়িটি নিরাপদ অবস্থানে থাকতে না পেরে বিপরীত দিক থেকে আসা আরেক গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। আজ রোববার নরসিংদীতে যে দুর্ঘটনায় ১১ প্রাণ ঝরে গেলো, তার মূলে রয়েছে এই ওভারটেক।

আজ নরসিংদীর বেলাবোর দড়িকান্দিতে অগ্রদূত পরিবহনের একটি বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে অন্তত ১১ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ১০ জন। সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার ছাতীর চর গ্রামে ফালু মিয়ার ছেলে মানিক মিয়া (৪৫), তার স্ত্রী মাফিয়া (৩৫), তার ছেলে অঞ্জাত নামা, বধু মিয়ার ছেলে হাসান মিয়া, শব্দর আলীর ছেলে হীরা (৩২), জান্নানসহ (৩৮) আরও ৫ জন।

বেলাবো থানার ওসি বদরুল আলম জানান, নিহতদের বেশির ভাগই মাইক্রোবাসের যাত্রী বলে জানালেও পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় বলতে পারেনি। ওসি বলেন, অগ্রদূত পরিবহনের বাসটি ভৈরব থেকে ঢাকা যাচ্ছিল। আর মাইক্রোবাস ঢাকা থেকে কিশোরগঞ্জ যাওয়ার পথে দড়িগাঁও এলাকায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে মাইক্রোবাস চুরমার হয়ে গেলে ১১ জন মারা যান। আহত হন আরও ৩।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানিয়েছে, সকালে ঢাকার কামরাঙ্গী চর থেকে ১৪ জন যাত্রী নিয়ে কিশোরগঞ্জের নিকলী থানার ছাতীর চর গ্রামে যাচ্ছিল একটি মাইক্রোবাস। মাইক্রোবাসটি ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বেলাব দড়িকান্দি বাজারে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা অগ্রদূত পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস একটি সিএনজিকে ওভারটেক করতে যায়। এসময় মাইক্রোবাসের সঙ্গে বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এসময় মাইক্রোবাসটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থালেই দুই শিশু ও ৪ নারী সহ ১১ জন মারা যান। মাইক্রোবাসের অপর ৩ জনসহ ১০ জন আহত হন।

খবর পেয়ে পুলিশ, দমকল বাহিনী ও স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে ভৈরবসহ আসপাশের হাসপাতালে পাঠান। দুর্ঘটনার পর ঢাকা-সিলেট মসহাসড়কে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় ১ ঘণ্টা পর দুর্ঘটনাকবতি যানবাহন সড়িয়ে নিলে যানচলাচল স্বাভাবিক হয়। প্রতক্ষ্যদর্শী স্থানীয় চেয়ারম্যান মোসলেহ উদ্দিন খান সেন্টু জানিয়েছেন, অগ্রদূত পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাস একটি সিএনজিকে ওভারটেক করার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাসটির ওপর উঠিয়ে দেয়। এসময় বিকট শব্দ হয়। পরে লোকজন নিয়ে উদ্ধার করে তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়। কিন্তু মাইক্রোবাসের ১১ যাত্রীই মারা যান।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com