তাজমহল হিন্দু মন্দির ছিল সরকার এরকম কোনো প্রমাণ পায়নি : সংস্কৃতিমন্ত্রী মহেশ শর্মা

ভারতের কেন্দ্রীয় সংস্কৃতিমন্ত্রী মহেশ শর্মা বলেছেন, তাজমহল হিন্দু মন্দির ছিল সরকার এরকম কোনো প্রমাণ পায়নি। সোমবার ভারতীয় সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় এ কথা জানান মহেশ শর্মা। প্রসঙ্গত, তাজমহলকে হিন্দু মন্দির ঘোষণা এবং সেখানে হিন্দুদের পুজো করার অনুমতি দেয়ার দাবিতে আগ্রা আদালতে হিন্দুত্ববাদীদের পক্ষ থেকে একটি মামলা করা হয়েছে। গত ২৫ মার্চ আগ্রা সিটি সিভিল কোর্টে বিশ্বখ্যাত স্মৃতিসৌধ তাজমহলকে ‘শিব মন্দির’ বলে দাবি করে আরএসএসপন্থী ৬ জন আইনজীবী মামলা দায়ের করেন।

মামলার বাদী হরিশঙ্কর জৈনসহ অন্য আইনজীবীদের দাবি, ‘আগ্রায় ভগবান অগ্রেশ্বর মহাদেব নগ্নাথেশ্বর বাস করতেন। এটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব তাই ‘ভারতের প্রত্নতাত্ত্বিক জরিপ’ বিভাগের হাত থেকে তাদের হাতে দিতে হবে।’ আদালতে এ ধরণের বিতর্কিত আবেদন জমা পড়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করে পর্যটন সংস্থাগুলো। তাদের দাবি, ‘সারা ভারতের সব চেয়ে বড় আকর্ষণ তাজমহল। একে বিতর্কিত করা উচিত নয়। তাজমহলকে যদি বাবরী মসজিদের মত বিতর্কিত করে তোলা হয়, তাহলে পর্যটনে এর ক্ষতিকর প্রভাব পড়বে।’

কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রী মহেশ শর্মা অবশ্য সোমবার সংসদে বলেছেন, ‘আদালতে আবেদনের বিষয়ে সরকার অবগত রয়েছে। এ নিয়ে বিতর্কের কারণে তাজমহল দেখতে আসা পর্যটকের সংখ্যা কমেনি এবং পর্যটনেও এর কোনো প্রভাব পড়েনি।’ তাজমহলকে যারা ‘হিন্দু মন্দির’ বলে প্রমাণের করার চেষ্টা করছেন কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি মন্ত্রী মহেশ শর্মার মন্তব্যে তারা ধাক্কা খাবেন বলে বিশ্লেষকরা মনে করছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
৩২ বার পঠিত

Leave a Reply